কোডিং ছাড়াই ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে স্টেপ বাই স্টেপ ওয়েবসাইট তৈরির গাইড ২০২০

ওয়েবসাইট তৈরি করা

ওয়েবসাইট তৈরি। ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি /
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড ২০২০ /
কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়?

সহজভাবে নতুনদের জন্য স্টেপ বাই স্টেপ ওয়েবসাইট তৈরি করার গাইড

এই আর্টিকেল পাঠ শেষে মাত্র ১ ঘন্টার মধ্যে তৈরি করতে পারবেন

  • ওয়েবসাইট তৈরি করতে
  • কোডিং ছাড়াই ওয়েবসাইট
  • ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট
  • ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট (বা ব্লগ)
  • ইকমার্স সাইট তৈরি করতে

কোডিং সম্পর্কে না জেনেও আপনি ওয়েবসাইট তৈরি এবং ডিজাইন কিংবা ওয়েব ডেভলপমেন্ট করতে পারবেন।

আপনি নিজের জন্য বা আপনার ব্যবসায়ের জন্য কোনও ওয়েবসাইট তৈরি করতে চাইলে, কিছু টুলস এবং রির্সোস ব্যবহার করে খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন।

আপনার ফ্রি সময়ের ১ থেকে ২ ঘন্টার মধ্যে আপনি এই লেখাটি পড়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন।

শুরু করার আগে জেনে নিন, একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে আপনার কি কি লাগবে:

  • ডোমেইন নেম/নাম (কাস্টম ওয়েব ঠিকানা, যেমন www.bndesk.com)
  • ওয়েবসাইট হোস্টিং  (সার্ভিস যা আপনার ওয়েবসাইটকে হোস্ট করে)
  • ওয়ার্ডপ্রেস (ফ্রি ওয়েবসাইট প্ল্যাটফর্ম)

একটি পূর্ণাঙ্গ ফাংশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে আপনার একটি ডোমেইন নাম (ওয়েব ঠিকানা) এবং একটি ওয়েব হোস্টিং অ্যাকাউন্ট প্রয়োজন হবে। ডোমেইন ও হোস্টিং ছাড়া ওয়েবসাইট তৈরি করা সম্ভব নয়। এই দুটি বিষয় আপনার ওয়েবসাইটটি অন্যের কাছে সম্পূর্ণ অ্যাক্সেসযোগ্য করে।

ডোমেইন ও হোস্টিং ছাড়া  আপনি কোনও ওয়েবসাইট সেট আপ করতে পারবেন না।

আপনার ডোমেইন এবং হোস্টিং নেওয়া হয়ে গেলে,  আপনি খুব সহজে ওয়ার্ডপ্রেস(সিএমএস) দিয়ে খুব সহজেই ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। ওয়ার্ডপ্রেস সর্বাধিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট বিল্ডিং প্ল্যাটফর্ম। ইন্টারনেট বিশ্বের সমস্ত ওয়েবসাইটের ৩৫% তৈরি হয়েছে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে।

একটি মাত্র ক্লিকেই ওয়ার্ডপ্রেস সাইট সেট আপ করা যায়। ওয়েব হোস্টিং সার্ভিসের সি প্যানেল থেকে একটি মাত্র ক্লিকেই ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইন্সটল করা যায়।

এই লেখাটি শেষ করার পরে, আপনার নিজস্ব কাস্টম ডোমেইন নামে অনলাইনে একটি সম্পূর্ণ কার্যকারী ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন যা অনলাইন দুনিয়ায় সকলেই অ্যাক্সেস যোগ্য।

আপনি কি ওয়েবসাইট করতে চান?  তাহলে চলুন শুরু করি…

ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড

  1. একটি ডোমেইন নাম পচ্ছন্দ করুন
  2. ওয়েব হোস্টিং এবং ডোমেইন নিবন্ধন করুন
  3. ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট সেট আপ করুন
  4. ওয়েবসাইট ডিজাইন এবং কাঠামো কাস্টমাইজ করুন
  5. ওয়েবসাইটে Content/Pages যুক্ত করা
  6. নেভিগেশন মেনু সেট আপ
  7. ইকমার্স সাইট তৈরি করা
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড পদক্ষেপ ১

একটি ডোমেইন নাম পচ্ছন্দ করুন

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে, আপনার প্রথম যে জিনিসটির দরকার তা হ’ল একটি ডোমেইন নেম/নাম নির্ধারণ করা।

আপনার ডোমেইন নামটি ওয়েব ব্রাউজারে লিখে ভিজিটর ওয়েবসাইটটি ব্রাউজ/ভিজিট করতে পারবে।

ওয়েবসাইটের নাম এবং ঠিকানা কে ডোমেইন নাম বলা হয়।

যেমন: এই ওয়েবসাইটটির ডোমেইনের নাম হ’ল bndesk.com।
আপনার ডোমেইনের নাম আপনার পছন্দমত কোন নাম হবে।

ডোমেইন নামগুলির জন্য বছরে ১৫০ থেকে ১২০০ টাকা পর্যন্ত খরচ হয়ে থাকে। একটি ডোমেইন আপনি যে কোন জায়গা থেকে রেজিস্ট্রেশন ও নবায়ন বা রিনিউ করতে পারবেন।

আপনি যদি নিজের ওয়েবসাইটের জন্য নিবন্ধভুক্ত বা কোনও ডোমেইন নাম পচ্ছন্দ না করে থাকেন তবে আপনাকে সহায়তা করার জন্য এখানে কয়েকটি টিপস দেওয়া হল।

ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড টিপস:
  • ব্যবসায়ের জন্য কোনও ওয়েবসাইট তৈরি করতে চাইলে,
    আপনার ডোমেইন নামটি আপনার কোম্পানি বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামের সাথে মিল রেখে নিতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ: YourCompanyName.com
  • আপনি যদি নিজের জন্য একটি ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট সেটআপ করার পরিকল্পনা করে থাকেন তবে YourName.com একটি দুর্দান্ত পচ্ছন্দ হতে পারে।
  • আপনার ওয়েবসাইটের লক্ষ্য যদি আন্তর্জাতিক ভিজিটর হয় তবে একটি “জেনেরিক” ডোমেইন নাম এক্সটেনশন যেমন, .com, .net বা .org ব্যবহার করাই ভাল।
    আপনার লক্ষ্য যদি বাংলাদেশের ভিজিটর হয় তাহলে .com.bd  এক্সটেনশনযুক্ত ডোমেইন নিবন্ধন করতে পারেন।

আপনার পছন্দের ডোমেইন নাম ইতিমধ্যে কেউ নিয়ে থাকলে সেটা নিয়ে চিন্তা না করে বিকল্প ডোমেইন নাম সন্ধান করবেন। কয়েক বিলিয়ন ডোমেইন নাম নিবন্ধন করার জন্য এখনো রয়েছে।

আপনার পচ্ছন্দের ডোমেইন নাম নিবন্ধন করুন
bluehost.com, sharewebhost.com, বা mylighthost.com এখানে।

Also read: Benefits of Guest Blogging

ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড পদক্ষেপ ২:

ওয়েব হোস্টিং  এবং ডোমেইন নিবন্ধন 

ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য, একটি ডোমেইন নাম ও ওয়েবসাইট হোস্টিং (ওয়েব হোস্টিং) প্রয়োজন।

ওয়েব হোস্টিং এমন একটি পরিষেবা বা সার্ভিস যা আপনার ওয়েবসাইটের ফাইলগুলি (কনটেন্ট) একটি সুরক্ষিত সার্ভারে সর্বদা চালু এবং চলমান রাখবে।

ওয়েবসাইটের কনটেন্ট ও প্রোগ্রামগুলো ওয়েব হোস্টিং-এ হোস্ট করা থাকে। ওয়েব হোস্ট ব্যতীত ওয়েবসাইট অ্যাক্সেসযোগ্য হবে না, অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইট অন্য কোন ভিজিটর পড়তে বা ব্রাউজ করতে পারবে না।

নতুন ওয়েবসাইটগুলির জন্য সাশ্রয়ী মূল্যের এবং নির্ভরযোগ্য ওয়েব হোস্টিংয়ের জন্য প্রতি মাসে ১০০ থেকে ৩০০০ টাকার  মধ্যে ভাল ওয়েবে হোস্টিং সেবা পাওয়া যায়।

ওয়েব হোস্টিং কোম্পানীর কাছ থেকে ডোমেইন ও হোস্টিং নেওয়ার আগে নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যগুলো রয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করুন:

  • এসএসএল সার্টিফিকেটসহ বিনামূল্যে ডোমেইন নাম (সিকিউরিটির জন্য)
  • এক ক্লিকেই ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল  (বিনামূল্যে)
  • কাস্টম ইমেল অ্যাকাউন্ট
  • সীমাহীন বা অবারিত ব্যান্ডউইথ (কোনও ট্র্যাফিক সীমাবদ্ধতা নেই)
  • কাস্টমার সাপোর্ট এবং ২৪/৭ লাইভ চ্যাট।

যদি আপনি এমন কোনও ওয়েবসাইট হোস্টিং কোম্পানী খুঁজে পান, যেখানে উপরের সমস্ত বৈশিষ্ট্যগুলো রয়েছে, তাহলে আপনি সম্ভবত একটি ভাল হোস্টিং সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সন্ধান পেয়েছেন।

ওয়েব হোস্টিং এবং ডোমেইন এর জন্য  bluehost.com, sharewebhost.com, বা mylighthost.com যেকোন কোম্পানীর সার্ভিস ব্যবহার করতে পারেন।

ডোমেইন এবং ওয়েব হোস্টিং নিতে যেকোন সহযোগীতার জন্য যোগাযোগ করতে পারেন আমাদের সাথে:
https://fb.com/bndesk.net

যেভাবে ডোমেইন হোস্টিং কিনবেন

bluehost.com -এ ওয়েব হোস্টিং অ্যাকাউন্ট খুলতে
“Get Started” এ ক্লিক করুন।

bluehost
ওয়েবসাইট তৈরি করার প্রথম ধাপ

ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ নির্বাচন করুন:

bluehost.com থেকে ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ নিতে চাইলে

bluehostsharewebhost.com থেকে ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ নিতে চাইলে
sharewebhostmylighthost.com থেকে ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ নিতে চাইলে
mylighthostএরপর, একটি ডোমেইন নাম নির্বাচন ও নিবন্ধিত করুন:
bluehost 4
আপনার যদি আগের থেকেই কোন ডোমেইন নেওয়া থাকে, তাহলে আপনার ডোমেইনের নাম সার্ভার (DNS) -এ আপনার কেনা হোস্টিং কোম্পানীর DNS লিখতে হবে।
কীভাবে এটি করা যায় সে সম্পর্কে  bluehost.com এর গাইড দেখুন এখানে।

আপনার নিবন্ধকরণ প্রক্রিয়াটি শেষ করার পরে তাত্ক্ষণিকভাবে অ্যাক্সেস পেতে, আপনার কয়েক মিনিট সময় লাগতে পারে।

আপনি এখনই আপনার ওয়েবসাইট তৈরি শুরু করতে পারেন।
কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়

পদক্ষেপ ৩: ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট সেট আপ করুন (ওয়েব হোস্টের মাধ্যমে)

ডোমেইন নাম এবং ওয়েব হোস্টিং প্রস্তুত হওয়ার পরে, আপনাকে একটি ওয়েবসাইট বিল্ডিং প্ল্যাটফর্ম (সিএমএস নামে পরিচিত) নির্বাচন করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের ফ্রি এবং পেইড ওয়েব বিল্ডিং প্ল্যাটফর্ম আছে।
আমরা আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস বেছে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছি। এটি ব্যবহার করা খুবই সহজ। ইউনিক এবং প্রফেশনাল ওয়েবসাইট বানানোর জন্য ওয়ার্ডপ্রেসে রয়েছে সহস্রাধিক ফ্রি ডিজাইন এবং অ্যাড-অনস। এছাড়াও ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট বানানো, মেইনটেইন্স করা ইত্যাদি খুবই সহজ ভাবে করা যায়।
আপনি যদি ওয়েব হোস্টিং হিসাবে bluehost ব্যবহার না করেন তবে চিন্তা করার কিছু নেই। অনেক ওয়েব হোস্টিং সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের হোস্টিং সি প্যানেলে  “ওয়ান ক্লিক ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল” অপশন থাকে। আপনার হোস্টিং কোম্পানীর সি প্যানেলে ‘ওয়ান ক্লিক ইনস্টল’ না থাকলে, আপনাকে ম্যানুয়ালি ওয়ার্ডপ্রেস সেট আপ করার চেষ্টা করতে হবে।
bluehost -এ ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ইনস্টল করা:
i) ব্লুহোস্ট অ্যাকাউন্টে লগ ইন করুন
ii) ক্লিক করুন “My Sites”” এবং নেক্সট “Create Site” এ ক্লিক করুন
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড iii) আপনার সাইট -এ কিছু প্রাথমিক তথ্য সরবরাহ করতে হবে, এবং ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টলেশন শুরু হবে। ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইনস্টল অটোমেটিকভাবে হয়ে যাবে।
iv) সেটআপটি শেষ হয়ে গেলে, ব্লুহোস্ট আপনাকে ইনস্টলেশন এবং লগইন সম্পর্কিত বিশদ তথ্য প্রদর্শন করবে। তথ্যগুলো নিরাপদ কোথাও সংরক্ষণ করুন।
ওয়েবসাইট তৈরি করাআপনি যদি নিয়মগুলো অনুসরণ করে থাকেন, তাহলে এতক্ষনে আপনার ওয়েবসাইট ইনস্টল হয়ে গেছে। আপনাকে অভিনন্দন…এতক্ষন bluehost সাইটে লগইন করে ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইনস্টল করার পদ্ধতি দেখানো হল। bluehost -এ একাউন্ট খুলতে হলে আপনার মাস্টার কার্ড কিংবা পেপ্যাল একাউন্ট থাকতে হবে। আপনার যদি মাস্টার কার্ড কিংবা পেপ্যাল একাউন্ট না থাকে, তাহলে বাংলাদেশের যে কোন হোস্টিং কোম্পানী থেকে ডোমেইন ও হোস্টিং নিতে পারবেন। আমি আপনাকে পরামর্শ দিব mylighthost.com বা sharewebhost.com সাইট থেকে ডোমেইন হোস্টিং নেওয়ার জন্য।
মাস্টারকার্ড ছাড়াও এখানে বিকাশ, রকেট কিংবা নগদ একাউন্ট থেকে পেমেন্ট করা যায়।
ওয়েব হোস্টিং কোম্পানীর সি প্যানেলে থেকে ওর্য়াডপ্রেস ইনস্টল

mylighthost.com বা sharewebhost.com থেকে ডোমেইন হোস্টিং নিলে, আপনি একটি সি প্যানেল একাউন্ট পাবেন। সেখানে ওয়ান ক্লিক ইনস্টেল অপশনে ৪৫০ টি ওয়েব বিল্ডার এপস রয়েছে।

যেহেতু আমরা ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে সহজেই একটি প্রফেশনাল ও দৃষ্টিনন্দন ওয়েবসাইট তৈরি করব, তাই এখন আমি আপনাদের দেখাব, কিভাবে সিপ্যানেল থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করবেন:

  • প্রথমে হোস্টিং কোম্পানীর ওয়েবসাইটে লগইন করবেন
    ওয়েবসাইট তৈরি করাএরপর ‘লগইন টু সি প্যানেলে’ ক্লিক করবেন। কিংবা আপনি হোস্টিং কোম্পানীর কাছ থেকে ডোমেইন, হোস্টিং একাউন্ট খোলার সময় সি প্যানেল একাউন্টের লগইন ইনফো পাবেন। সেখান থেকেও সি প্যানেলে লগইন করতে পারবেন।
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড
সি প্যানেল একাউন্টের ড্যাশবোর্ড

ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড

সি প্যানেল ড্যাশবোর্ডের নিচের দিকে ওয়ান ক্লিক অপশনে ওয়ার্ডপ্রেস -এ ক্লিক করে কিছু তথ্য পুরণ করে খুব সহজেই ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইনস্টল করব।

ওয়েবসাইট তৈরি করা
ওর্য়াডপ্রেস ওয়ান ক্লিক ইনস্টল
ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইনস্টল
ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইনস্টল
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড
ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইনস্টল

‘ইনস্টল’ বাটনে ক্লিক করলে ব্যবহার বা এক্সেস করার জন্য তৈরি হয়ে যাবে আপনার ওয়েবসাইট।

ওয়েবসাইট তৈরি করা

ওয়েব ব্রাউজারে আপনার ডোমেইন ঠিকানা টাইপ করে আপনার ওয়েবসাইট পরীক্ষা করুন

ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল হয়ে গেলে, ওয়েব ব্রাউজারে আপনার সাইটটি পরিক্ষা করবেন । ওয়ার্ডপ্রেস সঠিকভাবে ইনস্টল করার সাথে সাথে, আপনি যে জিনিসটি দেখবেন তা হ’ল একটি বেসিক ওয়েবসাইট:

ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড ২০২০
ওয়ার্ডপ্রেস বেসিক ওয়েবসাইট

এসএসএল / এইচটিটিপিএস(SSL/https) সেটিংস যাচাই করুন

সংক্ষেপে, একটি এসএসএল প্রশংসাপত্র( certificate) নিশ্চিত করে যে আপনার ওয়েবসাইটটি দর্শকদের কাছে নিরাপদ।

যখন আপনি একটি নতুন ওয়েবসাইট তৈরি করবেন বা ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করবেন তখন বেশির ভাগ হোস্টিং প্রভাইডার কোম্পানী স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি এসএসএল যুক্ত করে। আপনার সাইটের এসএসএল সার্টিফিকেট আছে কিনা তা পরীক্ষা করতে পারেন।

  • আপনার ওয়েবসাইটের সি প্যানেলে লগইন করুন।
  • সার্চ বক্সে ssl লিখে সার্চ করুন।
    ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড ২০২০
  • আপনার ওয়েবসাইটে ssl certificate ইনস্টল, ম্যানেজ করতে ssl অপশনে ক্লিক করুন।
  • ssl certificate আপনার ওয়েবসাইটে দেওয়া আছে কিনা, তা পরিক্ষা করার জন্য ‍ssl status -এ ক্লিক করুন।

যদি সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে থাকলে,  ওয়েব ব্রাউজারে আপনার ডোমেইন নামের পাশের একটি লক আইকনটি দেখতে পারবেন।
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড ২০২০এসএসএল সম্পূর্ণরূপে সেট আপ হওয়ার আগে কয়েক ঘন্টা সময় নিতে পারে তবে এটি আপনাকে আপনার ওয়েবসাইট বানাতে বাধা তৈরি করে না।

‘ওয়ান ক্লিক ইনস্টল’ -এ ক্লিক করে কয়েক মিনিটেই আপনার ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি ওয়েবসাইট এখন কমপ্লিট।

এখন কিভাবে কাস্টমাইজ,  পোস্ট, পেইজ তৈরি, হোম পেইজ তৈরি করবেন তা দেখানো হবে ধাপে ধাপে।

Also read: every newbie Blogger should know

পদক্ষেপ ৪:ওয়েবসাইট ডিজাইন এবং কাঠামো কাস্টমাইজ করা

আপনার ওয়েবসাইটি ইউনিক ও দৃষ্টিনন্দন করার জন্য এখন কিছু  পদক্ষেপ অনুসরণ করুন।

ক) আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটি থিম নির্বাচন করুন

ওয়ার্ডপ্রেস থিমগুলি হ’ল ডিজাইন প্যাকেজ।
যা দেখতে সম্পূর্ণ ওয়েবসাইটের মতো।
ওয়ার্ডপ্রেস থিমগুলি বিনিময়যোগ্য – আপনি সহজেই এক থিম থেকে অন্য থিমে স্যুইচ/পরিবর্তন করতে পারেন।

ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড ২০২০
ওয়ার্ডপ্রেস থিম

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, ওয়েব দুনিয়ায় হাজার হাজার বিনামূল্যে এবং পেইড ওয়ার্ডপ্রেস থিম রয়েছে।

আপনি একটি ফ্রি থিম দিয়ে শুরু করতে পারেন। যা বেশিরভাগ ডেভলপার শুরু করতে পছন্দ করে। ওর্য়াডপ্রেস ফ্রি থিমের অফিশিয়াল থিম ডিরেক্টরি হল WordPress.org
বিশেষত, এখানে সর্বাধিক জনপ্রিয় থিমগুলি পাবেন।

WordPress.org -এ যে সমস্ত থিম দেখবেন সেগুলি দুর্দান্ত মানের। প্রতিটি থিমের ব্যবহারকারী সংখ্যা, রেটিং ইত্যাদি দেখতে পারবেন।

আপনি WordPress.org  এর থিমের তালিকাটি ব্রাউজ করে, আপনার পছন্দসই থিম প্রিভিউ দেখাসহ ইনস্টল/ডাউনলোড করতে পারবেন।

আমরা আপনাকে ২০২০ সালের ১০ টি ফ্রি থিমের সাথে পরিচয় করিয়ে দিব।

২০২০ সালের সেরা ১০টি ফ্রি ওর্য়াডপ্রেস থিম:

০১। নেভ (neve)

০২। ওশান ডব্লিউ পি(OceanWP)

০৩। হেস্টিয়া(Hestia)

০৪। অ্যাস্ট্রা(Astra)

০৫। সিডনি(Sydney)

০৬। জাকরা(Zakra)

০৭। জেনারেটপ্রেস(GeneratePress)

০৮। কাস্টমিফাই (Customify)

০৯। কালারম্যাগ(ColorMag)

১০। সুপারম্যাগ(SuperMag)

আপনি যে কোন থিম কাস্টমাইজ করতে পারবেন। আমরা আপনাকে এই নিবন্ধে neve ইনস্টল, কাস্টমাইজ, পোস্ট/পেজ তৈরি করা, হোম পেজ তৈরি করা শেখাবো।

Neve এটি একটি বহুমুখী থিম (বিভিন্ন ধরণের প্যাকেজ ডিজাইন)।
এই থিমে বিভিন্ন ধরনের বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

আমরা এই নির্দেশিকাটিতে Neve থিমটি ব্যবহার করতে যাচ্ছি।
খ) আপনার পছন্দের  থিমটি ইনস্টল করুন

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস অ্যাডমিন ইন্টারফেস বা ওর্য়াডপ্রেস ড্যাশবোর্ডে প্রবেশ করুন।

ওর্য়াডপ্রেস ওয়েবসাইটের এডমিনিস্ট্রেশন/ড্যাশবোর্ড লিংক(URL) হচ্ছে:  https://www.YOURSITE.com/wp-admin

ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টলেশনের সময় আপনার ব্যবহারকারীর নাম এবং পাসওয়ার্ডটি এখানে ব্যবহার করুন।

১। সাইডবার থেকে, “Themes → Add New.” ক্লিক করুন।
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড ২০২০২। অনুসন্ধান বাক্সে, “Neve” টাইপ করুন এবং থিমের নামের পাশে “Install” বোতামটি ক্লিক করুন:
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট

৩। ইনস্টলেশন সম্পন্ন হওয়ার পরে, “ইনস্টল করুন” বোতামের জায়গায় প্রদর্শিত হওয়া “অ্যাক্টিভেট” বোতামটি ক্লিক করুন।

৪। আপনার ইনস্টলেশনটি প্রত্যাশার সাথে সম্পূর্ণ হলে, একটি সাফল্যের বার্তা দেখতে পাবেন।

গ) ইমপোর্ট ডিজাইন (শুধুমাত্র নেভ থিম ব্যবহারকারীদের জন্য)

থিমটি এই মুহুর্তে সক্রিয় থাকলেও, এটি আরো পরিপূর্ণ করতে, আপনাকে আরো কিছু কাজ করতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি
স্বাগত বার্তা

ড্যাশবোর্ডে থিম অপশনে আপনি এই স্বাগত বার্তাটি দেখতে পাবেন।
নেভ সম্পর্কে দুর্দান্ত জিনিসগুলির মধ্যে একটি হ’ল আপনি এটির সাথে কেবল একটিই ডিজাইন পাবেন না, বেছে নিতে পারবেন অসংখ্য ডিজাইন ও প্যার্টান। বিভিন্ন ডিজাইনের একটি সম্পূর্ণ লাইব্রেরি।

আপনার কাঙ্খিত ডিজাইনের প্যার্টান পেতে বা বিভিন্ন ফিচার এড করতে প্রয়োজনীয় প্লাগিনগুলি ইনস্টল করে একটিভ করুন।

ওয়েবসাইট তৈরি করা
নেভ থিম প্লাগিন পেজ
ওয়ান-ক্লিক ইনস্টলেশন এর মাধ্যমে  প্রাক-নির্মিত ডিজাইন ইনস্টল করা:
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি
নেভ থিম ডোমো

নেভ থিমে একাধিক পূর্বের থেকে ডিজাইন করা ডেমো রয়েছে।
যা আপনার জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা।
একটা মাত্র ক্লিক করে ডেমো ইনস্টল করতে পারবেন।
আপনার পছন্দের ডোমোটি ইনস্টল করুন:

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি
ডেমো ইনস্টল

এরপর, “Appearance → থেকে Neve Options”  গিয়ে থিমের ফিচারসমুহ দেখুন।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি
neve option
নীচে এই  অপশনগুলির সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা করছি:
  1. একটি লোগো যুক্ত করুন
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি
upload logo

আপনি যা দেখতে পাবেন:

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি
আপলোড লোগো

এই ইন্টারফেসটিকে ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজার বলা হয় এবং এটি আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের উপস্থিতির বিভিন্ন দিক সম্পাদনা করতে দেয়।  সহজেই লোগো আপলোড করতে পারবেন।
লোগো আপলোড করতে , উপরের বাম কোণার কাছে অবস্থিত “Select Logo” বোতামটি ক্লিক করুন।

ওয়ার্ডপ্রেস আপনাকে লোগো স্কিপ করার সুযোগ দিবে, তবে আপনি তা এড়িয়ে যেতে পারেন।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি
upload logo

লোগো আপলোড করা হয়ে গেলে, আপনার লোগোটি  আপনার ওয়েবসাইটের যে কোন পেজে তা উপরের কোণে দেখতে পারবেন।

এছাড়াও, আপনি যদি লোগোটির পাশাপাশি সাইটের নাম এবং ট্যাগলাইন প্রদর্শন করতে পারবেন।
লোগোর সর্বাধিক প্রস্থ নির্ধারণ করতে চাইলে, আপনি  তা খুব সহজেই করতে পারবেন।
এই সেটিংসটি নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করুন এবং আপনার জন্য সবচেয়ে কার্যকর কী ? তা বেছে নিন।

লোগো আপলোড করা হয়ে গেলে “Publish” বোতামটি ক্লিক করুন (উপরের বাম কোণে) এবং তারপরে কাস্টমাইজার থেকে বেরিয়ে আসার জন্য “X” বোতামটি ক্লিক করুন।

Also read: Different types of bloggers

ওয়েবসাইট কালার পরিকল্পনা এবং বর্ণবিন্যাস পরিবর্তন:

আপনার সাইটটিকে ইউনিক  এবং আরও বেশি টিউন করার জন্য আপনার সাইটের কালার স্কিম ও বর্ণবিন্যাস পরিবর্তন, পরিমার্জন করতে পারেন।

“Appearance → Neve Options” আবারো গিয়ে দুটি বিভাগ নিয়ে আলোচনা করব।
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি

  • প্রথমে “Set Colors.” এ ক্লিক করুন।
  • বেশিরভাগ ওয়ার্ডপ্রেস থিমগুলি ডিজাইনের বিভিন্ন ফিচারের বিভিন্ন কালার স্কিম দ্বারা নির্ধারিত করা যায়।
  • সেগুলি হল লিঙ্কগুলির রং, সাইটের পাঠ্য রং এবং ব্যাকগ্রাউন্ড রং।
  • আপনি কাস্টমাইজারের মাধ্যমে নেভ থিমের জন্য রং অ্যাসাইনমেন্ট পরিবর্তন করতে পারবেন।
  • যে কোনও রংয়ের স্যুইচ করতে, color অপশনে ক্লিক করুন এবং একটি নতুন রং নির্বাচন করুন।
color option
কালার অপশন

আপনার কাজ শেষ হয়ে গেলে “Publish” এবং “X” এ ক্লিক করুন।

একই ভাবে ফন্ট পরিবর্তন করতে পারবেন:
  • “Appearance → Neve Options” প্যানেল থেকে “Customize Fonts” -এ ক্লিক করুন
  • নেভ থিমে সিস্টেম ফন্ট এবং গুগল ফন্টগুলির সম্পূর্ণ ক্যাটালগ থেকে নির্বাচন করা যায়।
  • জাস্ট ক্লিক “Font Family” বক্স এবং আপনার পছন্দের ফন্ট নির্বাচন করুন।
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড
Customize Fonts
  •  শিরোনামগুলির জন্য ব্যবহৃত পৃথক ফন্টগুলি ফাইন-টিউন করতে পারেন।
  • আপনার সাইটে তাদের প্রভাব কী?  তা দেখতে এই সেটিংসটি নিয়ে পরীক্ষা করুন।
  • সাইটের বডি বিভাগের জন্য ব্যবহৃত ফন্টটি কাস্টমাইজ করতে, উপরের বাম দিকে তীর বোতামটিতে ক্লিক করুন।

ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড

  • ক্লিক করুন “General.” -এ। এটি আপনাকে অনুরূপ বিকল্প প্যানেলে নিয়ে যাবে, তবে এবার আপনি মূল বডি ফন্টটি সম্পাদনা করছেন।
  • “Publish” এবং “X” এ ক্লিক করুন।

সাইডবার যুক্ত করুন

“Appearance → Neve Options” প্যানেলে সাইডবার সেট আপ করতে পারবেন। শুরু করতে “Content / Sidebar” এ ক্লিক করুন।

এখানে তিনটি প্রধান অপশন রয়েছে:

কোনও সাইডবার নয়, বাম দিকে সাইডবার বা ডানদিকে সাইডবার। ডানদিকে সাইডবারটি হ’ল বেশিরভাগ ওয়েবসাইটের ক্লাসিক বিন্যাস। আপনি সাইটের প্রস্থও সেট আপ করতে পারেন। আপনার পরিবর্তনগুলি করার পরে, Publish” এবং “X.” এ ক্লিক করুন।

উইজেট যুক্ত করুন (ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস অ্যাড-অনস)

উইজেটগুলি হ’ল সেই ছোট্ট কনটেন্ট ব্লক যা সাধারণত ওয়েবসাইটগুলির সাইডবারগুলিতে প্রদর্শিত হয়। যেহেতু আমরা আগের ধাপে সাইডবারটি সেট করেছি তাই এখন উইজেটগুলির সাথে এটি কাস্টমাইজ করব।

উইজেটগুলি কনফিগার করতে, “Appearance → Widgets.” এ যান। আপনি এমনটি দেখতে পাবেন:

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট
widget

বাম দিকে, আপনি সমস্ত উইজেট সমুহ দেখতে পাবেন;
এবং ডানদিকে, আপনার বর্তমান থিম দ্বারা সমর্থিত সমস্ত উইজেট এরিয়া রয়েছে।
সাইডবারে একটি উইজেট যুক্ত করতে, আপনাকে যা করতে হবে তা হ’ল বাম দিক থেকে উইজেটটি ধরুন এবং এটিকে টানুন এবং সাইডবার এরিয়াতে নিয়ে আসুন।

উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি সাইডবারে আপনার সমস্ত পেজের তালিকাবদ্ধ করতে চাইলে, “page” উইজেটটি ধরুন এবং এটিকে সাইডবার বিভাগে টানুন। উইজেটের কিছু প্রাথমিক সেটিংসও কনফিগার করতে পারবেন।

নেভ থিমের এক্সপেরিমেন্ট  পরীক্ষা করুন

এতক্ষন যে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে,  কীভাবে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়?

আপনি যদি মনোযোগ দিয়ে এই আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন, তাহলে একটা ওয়েবসাইটের মুল অবয়ব সম্পর্কে ধারণা পেয়ে গেছেন।

আরো বিষদ জানতে, “Appearance → Customize.” এ যান।
কাস্টমাইজারের সমস্ত সেটিংস এবং প্রিসেট সহ প্রধান ইন্টারফেসটিকে সম্পাদনা করুন এবং সাইটটি দেখুন।

ওয়েবসাইট

আপনার সাইট এর কাস্টমাইজ অপশনের অপশনগুলি পরিক্ষা করুন এবং আপনার সাইটটি পরিকল্পনামাফিক প্রফেশনাল ও ইউনিক ভাবে তৈরি করুন।

পদক্ষেপ ৫: ওয়েবসাইটে Content/Pages যুক্ত করা

ওয়েব পেজগুলি ওয়ার্ডপ্রেসে তৈরি করা খুবই সহজ। তবে কীভাবে তা তৈরি করা যায়?
সেটা জানার পাশাপাশি কোন পেজগুলি তৈরি করা উচিত তা নিয়ে আলোচনা করা যাক।

বেশিরভাগ ওয়েবসাইটগুলি নীচের পেজগুলিকে প্রয়োজনীয় বলে মনে করে:

Homepage – এটি মূল বা প্রথম পেজ। যখন কোনও ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটে ব্রাউজ করবে,  প্রথমেই তা দেখতে পারবে।

About page – আপনার ওয়েবসাইটটি কী? তা ব্যাখ্যা করার একটি পেজ।

Contact page – আপনার সাথে ভিজিটরের যোগাযোগ করার পেজ।

Blog page – আপনার সাম্প্রতিক ব্লগ পোস্টগুলির একটি তালিকা; আপনি যদি ব্লগিংয়ের পরিকল্পনা না করে থাকেন তবে আপনি ব্লগ পৃষ্ঠাটি আপনার সংস্থার সংবাদ এবং ঘোষণার স্থান হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

Services page – আপনার ওয়েবসাইটটি ব্যবসায়ের জন্য তৈরি করলে, আপনার সেবা সমুহের তালিকার পেজ।

Shop page – আপনি যদি ইকমার্স সাইট তৈরি করতে চান, তাহলে আপনার জন্য এই পেজ।

ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি খুব সহজে পেজ তৈরি, সম্পাদনা ইত্যাদি করতে পারবেন। ওয়ার্ডফাইলে লেখা ডকুমেন্টর মত ওয়ার্ডপ্রেসে  পেজ তৈরি করা যায়। এছাড়াও html, css, javascript ব্যবহার করেও আপনি পেজ/পোস্ট তৈরি করতে পারবেন।

 হোমপেজ তৈরি করা

আপনি যদি Neve থিম ব্যবহার করে থাকেন তবে আপনার হোমপেজে এমন কিছু বা অন্য কিছু দেখাচ্ছে:
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট

আপনি এই পৃষ্ঠার কাঠামোর পাশাপাশি এতে থাকা উপাদানগুলি (সমস্ত পাঠ্য ও চিত্র) সম্পাদনা করতে পারেন।

এটি করতে, টপ বারের “Edit with Elementor” বোতামটি ক্লিক করুন।
কোডিং ছাড়াই ওয়েবসাইটআপনি যা দেখতে পাচ্ছেন তা হল:
এলিমেন্টর পেজ বিল্ডার ইন্টারফেস
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট

এলিমেন্টর কে ভিজ্যুয়াল পেজ নির্মাতা বলা হয়। এর অর্থ হল: পেজের যে কোনও উপাদান ক্লিক করতে পারেন এবং সরাসরি সম্পাদনা করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি প্রধান শিরোনামটি পরিবর্তন করতে চান তবে কেবল এটিতে ক্লিক করুন এবং টাইপ করা শুরু করুন…

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট

elementor berড্রাগ এন্ড ড্রপ এর মাধ্যমে এলিমেন্টর প্লাগিন এর প্রত্যেকটি ব্লক বা এলিমেন্ট ব্যবহার করতে পারবেন।

এলিমেন্টর ব্লক

নতুন উপাদান যুক্ত করতে উপরের বাম কোণে ছোট বর্গাকার আইকনে ক্লিক করুন।

কনটেন্ট ব্লকের একটি তালিকা দেখতে পাবেন।

যে কোনও ব্লক ধরুন এবং এটিকে পৃষ্ঠার ক্যানভাসে টানুন।

হোমপেজের কাজ করার সর্বোত্তম উপায় হ’ল ব্লক বাই ব্লক সম্পাদনা করে পুরো হোম পেজ সম্পাদনা করা।

নতুন কনটেন্ট যুক্ত করুন। ব্লকগুলি সম্পাদনা করুন, অপ্রয়োজনীয় ব্লকগুলি মুছে ফেলুন। এই পুরো ইন্টারফেসটি আয়ত্বে আনতে ১ থেকে ২ ঘন্টা সময় ব্যায় করুন।

“About”, “Services”, “Contact” পেজ তৈরি করা

ওয়ার্ডপ্রেসে হোমপেজে কাজ করার চেয়ে  ক্লাসিক ওয়েব পেজগুলি তৈরি করা আরও সহজ। “Pages → Add New” এ যান। আপনি এই ইন্টারফেসটি দেখতে পাবেন:
new pageপ্রতিটি পেজের একটি শিরোনাম প্রয়োজন, সুতরাং ‍Add title অংশে একটি উপযুক্ত শিরোনাম লিখুন।  উদাহরণস্বরূপ, ““About Us” বা “Contact.”

এরপরে, একটি পেজ লেয়াউট পছন্দ করুন। যদি আপনি একটি আদর্শ পেজ তৈরি করতে চাইলে, তালিকার প্রথমটি সিলেক্ট করতে পারেন “একক সারি”। আপনার কাজের গতি বাড়ানোর জন্য, টেম্পলেট লাইব্রেরি থেকে চয়ন করতে পারেন। তার জন্য, নীল বোতামে ক্লিক করুন।

আপনি একটি উইনডোয় প্রি মেড পেজ সেকশন দেখতে পারবেন। সেগুলো সহজেই পেজে যুক্ত করতে পারবেন:
ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট গাইড আপনার পছন্দসই ব্লকের পাশে “Insert” বোতামটি ক্লিক করুন, এবং সেটি পৃষ্ঠাতে যুক্ত হবে। সেখান থেকে আপনি এটিকে আরও কাস্টমাইজ করতে, পাঠ্য পরিবর্তন করতে বা চিত্রগুলি প্রতিস্থাপন করতে পারবেন।
about page

আপনার কাজ শেষ হয়ে গেলে, স্ক্রিনের উপরের ডানদিকে “Publish” বোতামটি ক্লিক করুন।

আপনার contact page বা services page কাজ করার সময় আপনি একই প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করতে পারেন। টেমপ্লেট লাইব্রেরি থেকে কেবল বিভিন্ন পেজ ব্লক বেছে নিন।
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইটআপনি যদি হাতের সাহায্যে নতুন পৃষ্ঠার এলিমেন্ট যুক্ত করতে চান – টেম্পলেটগুলি ব্যবহার না করে – সম্পাদক ইন্টারফেসের উপরের বাম কোণে থাকা “+” আইকনে ক্লিক করুন।
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট সেখানে যে কোনও ব্লক নির্বাচন করতে পারবেন। তা আপনার পৃষ্ঠার নীচে যুক্ত হবে। একটি নতুন অনুচ্ছেদে ব্লকটি দেখতে এরকম:
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট

এটিকে নির্দ্বিধায় সম্পাদনা করতে পারবেন, পাঠ্যের বৈশিষ্ট্যগুলি পরিবর্তন করতে পারবেন, ডানদিকের সাইডবারে রঙিন সেটিংস রয়েছে।

সর্বদা, আপনার কাজ শেষ হয়ে গেলে “Publish” এ ক্লিক করতে ভুলবেন না।

একটি ব্লগ পৃষ্ঠা/পেজ তৈরি করুন

ব্লগ পৃষ্ঠাটি যেখানে আপনার অতি সাম্প্রতিক ব্লগ পোস্টগুলির তালিকা রাখতে পারেন।

সুসংবাদটি হল ব্লগ পৃষ্ঠাটি ইতিমধ্যে আপনার জন্য তৈরি করা হয়েছে। আপনি ওয়ার্ডপ্রেস এবং নেভ থিম ইনস্টল করার সময় এটি অটোমেটিক ভাবে তৈরি হয়েছে। আপনি “page” এ গিয়ে পৃষ্ঠাটি দেখতে পারেন:
কোডিং ছাড়াই ওয়েবসাইট আপনার ব্লগ পৃষ্ঠাটি কার্যকর অবস্থায় দেখতে “View” লিঙ্কটিতে ক্লিক করুন।

নতুন ব্লগ পোস্ট যুক্ত করা :

নতুন ব্লগ পোস্ট যুক্ত করতে, কেবল “Posts → Add New.” এ যান।
কোডিং ছাড়াই ওয়েবসাইট

এই ইন্টারফেস আপনাকে কিছু মনে করিয়ে দেয় কি?
হ্যাঁ, এটি একই রকম সম্পাদনার টুলস।
যে কোন পেজ বা পোস্ট তৈরিতে এই টুলস ব্যবহার করতে পারবেন, অথবা “classic editor” প্লাগিন ব্যবহার করে পোস্ট বা পেজ তৈরি করতে পারবেন।

পদক্ষেপ ৭: একটি অনলাইন স্টোর / ইকমার্স সাইট তৈরি করা

এই নিবন্ধে আমরা শেষ যে কাজটি করব তা হ’ল নিজের একটি অনলাইন স্টোর/ইকমার্স সাইট তৈরি করা।

আপনি যদি নতুন তৈরি ওয়েবসাইটটিতে কোনও অনলাইন স্টোর যুক্ত করতে চান, তাহলে  ধাপে ধাপে এই টিউটোরিয়ালটি অনুসরণ করুন।

ওয়ার্ডপ্রেস ইকমার্স কীভাবে কাজ করে

ওয়ার্ডপ্রেস এমন একটি বহুমুখী ওয়েবসাইট প্ল্যাটফর্ম।
ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে খুব সহজেই একটি সম্পূর্ণ কার্যকরী ইকমার্স অনলাইন স্টোর তৈরি করতে পারবেন।

আপনি যে কোনও পণ্য তালিকাভুক্ত করতে পারবেন, সেগুলি বিক্রয়ের জন্য আপনি ইকমার্স সাইট তৈরি করছেন।
গ্রাহকদের কাছ থেকে অর্ডার সংগ্রহ করতে পারবেন।
শিপিং-সম্পর্কিত উপাদানগুলিও পরিচালনা করতে পারেন।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ইকমার্স সাইট তৈরি করতে চাইলে, আপনাকে WooCommerce নামে একটি প্লাগইন ব্যবহার করতে হবে।

WooCommerce হ’ল ওয়ার্ডপ্রেসের জন্য সর্বাধিক জনপ্রিয়, সবচেয়ে কার্যকরী এবং সেরা ইকমার্স সমাধান।

আপনার সাইটে  WooCommerce ইনস্টল করা হয়ে গেলে এবং আপনার ক্যাটালগে  পণ্যগুলি যুক্ত করুন। আপনি লক্ষ্য করবেন যে, প্রক্রিয়াটিতে, WooCommerce দ্বারা স্বয়ংক্রিয়ভাবে নতুন পৃষ্ঠা তৈরি করা হয়েছে। এই পৃষ্ঠাগুলি হ’ল:

  • “কার্ট” – আপনার স্টোরের শপিং কার্ট
  • “চেকআউট” – চেকআউট পৃষ্ঠা যেখানে গ্রাহকরা তাদের ক্রয় সম্পূর্ণ করতে পারবেন।
  • “আমার অ্যাকাউন্ট” – প্রতিটি গ্রাহকের প্রোফাইল; অতীত আদেশ, বর্তমান বিশদ এবং অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য ধারণ করে; গ্রাহক সর্বদা তাদের তথ্য সম্পাদনা করতে পারবেন।
  • “শপ” / “পণ্য” – মূল শপ পৃষ্ঠা – এটি যেখানে আপনার পণ্যগুলি তালিকাভুক্ত থাকে।

এই পৃষ্ঠাগুলির প্রত্যেকটি আপনার স্টোর এবং এর কার্যকারিতার জন্য একটি নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে কাজ করে। বেশিরভাগ ওয়ার্ডপ্রেস থিম -এ WooCommerce দিয়ে ইকমার্স সাইট বানানো যায়।

আপনি যদি এই নতুন কোনও পৃষ্ঠাতে যান তবে আপনি দেখতে পাবেন যে উপস্থাপনাটি পরিষ্কার এবং সবকিছু উপলব্ধি করা সহজ।
শপিং কার্ট পেজের উদাহরণ এখানে:
cartএগুলি ছাড়াও, এই সমস্ত পৃষ্ঠাগুলি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে অন্য যে কোনও পৃষ্ঠার মতো কাজ করে। এর অর্থ হ’ল আপনি এগুলি সহজেই সম্পাদনা করতে পারবেন, নিজের উপাদান যুক্ত করতে বা রঙ, লেআউট ইত্যাদি সম্পাদনা করতে পারবেন।

আপনার সাইটের প্রধান মেনুতে একটি নতুন কার্ট আইকনটি দেখতে পারবেন।

এই পর্যায়ে আপনার ইকমার্স স্টোর পুরোপুরি চালু হয়েছে। এর অর্থ আপনার গ্রাহকরা এসে তাদের কেনাকাটা করতে পারবেন। আপনি তাদের আদেশগুলি ’WooCommerce → Orders.” এর অধীনে ওয়ার্ডপ্রেস অ্যাডমিন অঞ্চলে দেখতে পাবেন।
Ordersঅভিনন্দন – আপনি আরম্ভ করার জন্য প্রস্তুত!

অভিনন্দন, আপনি নিজের ওয়েবসাইট থেকে কীভাবে তৈরি করবেন তা সবেমাত্র অঙ্কিত করেছেন!

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *