একাদশ শ্রেণি ভর্তি/এইচএসসি/উচ্চ মাধ্যমিক ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ ভর্তি নিয়ম

1592

একাদশ শ্রেণি ভর্তি/এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১/উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি/আলিম ভর্তি/একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন

 

একাদশ শ্রেণি/এইচএসসি/উচ্চ মাধ্যমিক ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ ভর্তি নিয়মএই নিবন্ধ শেষে আপনারা যে প্রশ্নগুলোর উত্তর পাবেন

একাদশ শ্রেণি ভর্তি
একাদশ ভর্তি
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি
একাদশ শ্রেণিতে অনলাইনে ভর্তি
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি তথ্য
একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির আবেদন ফরম
একাদশে ভর্তি
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি টিউটোরিয়াল
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তিতে যা যা লাগবে
এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১
এইচএসসি ২০২০-২১ ভর্তির জন্য আবেদন পত্র
এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১ নিয়ম
এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১ টিউটোরিয়াল
এইচএসসি ভর্তির আবেদন ফরম
এইচএসসি ভর্তির আবেদন
এইচএসসি/উচ্চ মাধ্যমিক/একাদশ শ্রেণিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ ভর্তি
এইচএসসি ভর্তিতে যা যা লাগবে
উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি,
উচ্চ মাধ্যমিক ২০২০-২১ ভর্তি
উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তির জন্য আবেদন পত্র
কিভাবে ভর্তি হবেন উচ্চ মাধ্যমিকে?
উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি নিয়ম
উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি নির্দেশিকা
উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি টিউটোরিয়াল
উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তিতে যা যা লাগবে
আলিম ভর্তি
আলিম ভর্তির নিয়ম
আলিম ভর্তি ২০২০-২১
আলিম ভর্তির জন্য আবেদন পত্র
কিভাবে ভর্তি হবেন আলিম -এ
আলিম ভর্তি নির্দেশিকা
আলিম ভর্তি টিউটোরিয়াল
আলিম ভর্তিতে যা যা লাগবে

একাদশ শ্রেণি ভর্তি
ভর্তি ফরম, ভর্তির যোগ্যতা, ভর্তির জন্য আবেদন পত্র, অনলাইনে ভর্তির আবেদন, কিভাবে অনলাইনে ভর্তির আবেদন করতে হয়, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

একাদশ শ্রেণির ভর্তি গাইড

প্রিয়, এসএসসি উর্ত্তীণ শিক্ষার্থীবৃন্দ। বাংলা ডেস্কের পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য অভিনন্দন।
জীবন পথের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা গ্রহণের পরের ধাপে হে নবীণ তোমাকে স্বাগতম।
তোমরা যারা মাধ্যমিক স্তর অতিক্রম করে উচ্চ মাধ্যমিকে প্রবেশ করতে যাচ্ছো তাদের জন্য,
কি ভাবে অনলাইনে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হওয়া যায়?
তা বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে এই নিবন্ধে।

জ্ঞান বা দক্ষতা অর্জনই শিক্ষা। ব্যাপক অর্থে পদ্ধতিগতভাবে জ্ঞানলাভের প্রক্রিয়াকেই শিক্ষা বলে। তবে শিক্ষা হল সম্ভাবনার পরিপূর্ণ বিকাশ সাধনের অব্যাহত অনুশীলন।

শিক্ষার ইংরেজি প্রতিশব্দ এডুকেশন। যা এসেছে ল্যাটিন শব্দ এডুকেয়ার বা এডুকাতুম থেকে। শাব্দিক অর্থ ভেতরের সম্ভাবনাকে বাইরে বের করে নিয়ে আসা বা বিকশিত করা বা আলোকিত হওয়া।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাষায়  “শিক্ষা হল তাই যা আমাদের কেবল তথ্য পরিবেশনই করে না, বিশ্বসত্তার সাথে সামঞ্জস্য রেখে আমাদের জীবনকে গড়ে তোলে।”

xi admission

একাদশ শ্রেণি/এইচএসসি/উচ্চ মাধ্যমিক/আলিম ২০২০-২১ 
ভর্তির নিয়ম

২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নিয়ম

ঢাকা, রাজশাহী, কুমিল্লা, যশোর, চট্টগ্রাম, বরিশাল, সিলেট, দিনাজপুর,
ময়মনসিংহ এবং মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড

সাধারণ নির্দেশনা

► গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত সকল কলেজ/মাদ্রাসা/কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আবেদন করা যাবে।

► শ্রীঘ্রই প্রকাশিত নির্ধারিত তারিখে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য ইন্টারনেট (অনলাইনে) পদ্ধতিতে আবেদন করা যাবে।

► ভর্তি সংক্রান্ত সকল কার্যক্রমের সময়সূচি, ভর্তি নির্দেশিকা, আবেদনের নিয়মাবলী এবং ফলাফল নির্ধারিত ওয়েবসাইট www.xiclassadmission.gov.bd  এবং স্ব স্ব বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও জানা যাবে।

► এই ভর্তি নির্দেশিকার যে কোনো ধারা/নিয়মাবলীর সংশোধন, সংযোজন বা বাতিল করার অধিকার শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

► ইন্টারনেটে (অনলাইনে) সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ/মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আবেদনের জন্য শিক্ষাবোর্ড কতৃক নির্ধারিত টাকা আবেদন ফি প্রযোজ্য হবে।  (২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ১৫০/= ছিল।)

টেলিটক/বিকাশ/শিওরক্যাশ/নগদ-এর মাধ্যমে নির্ধারিত আবেদন ফি’র টাকা প্রদান করা যাবে।

► অনলাইন বা ইন্টারনেটে ভর্তি পদ্ধতিতে সর্বোচ্চ ১০টি প্রতিষ্ঠানে আবেদন করা যাবে তবে- একই প্রতিষ্ঠানের একাধিক শিফট/ভার্সন/গ্রুপে আবেদন করা যাবে।

► আবেদনে শিক্ষার্থীর কোনো তথ্য অসত্য, ভুল বা অসস্পূর্ণ বলে প্রমাণিত হলে তার আবেদন/চূড়ান্ত ভর্তি বাতিল করার অধিকার শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

► প্রথমবার আবেদনের সময় শিক্ষার্থীকে একটি মোবাইল নম্বর দিতে হবে, যেটি শিক্ষার্থীর Contact Number  হিসেবে বিবেচিত হবে। Contact Number টি শিক্ষার্থীর জন্য অতীব গুরত্বপূর্ণ কেননা পরবর্তীতে শিক্ষার্থীর সকল যোগাযোগ ও আবেদনের জন্য কিংবা ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আবেদন সংশোধনের জন্য এই Contact Number টির প্রয়োজন হবে।

► প্রয়োজনীয় অর্থ পরিশোধ করার সময় শিক্ষার্থী যে Contact মোবাইল নম্বর প্রদান করেছেন সেটি সাবধানে পূরণ করতে হবে। এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ভর্তি সম্পর্কিত সকল তথ্য এই নম্বরে পাঠানো হবে। অভিভাবকের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরর প্রদান করতে হবে এবং তাঁর (যাঁর জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর প্রদান করছেন) সাথে শিক্ষার্থীর সম্পর্ক উল্লেখ করতে হবে । ভর্তির সময় পূরণকৃত জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর যাচাই করা হতে পারে এবং জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর (অভিভাবকের) পূরণ করা থাকলে ভর্তি প্রক্রিয়া  সহজতর হবে।

একাদশ শ্রেণির ভর্তি গাইড

► একাধিক শিক্ষার্থীর আবেদনে একই Contact Number ব্যবহার করা যাবে না অর্থাৎ ভিন্ন ভিন্ন শিক্ষার্থীর Contact Number ভিন্ন ভিন্ন হতে হবে। Contact Number টি পরিবর্তন করা যাবে না, তাই এক্ষেত্রে যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে যাতে এটি ভুল না হয়।

► শিক্ষার্থীদের আবেদনের  ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের Shift/ Version/Group  অনুযায়ী পছন্দক্রম প্রযোজ্য হবে।
► ফলাফল প্রদানের পূর্বে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ইন্টারনেটের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) বার কলেজের পছন্দক্রম ও কলেজ পরিবর্তন করা যাবে।

► ৩ (তিন) টি পর্যায়ে ভর্তির ফলাফল প্রক্রিয়াকরণ করা হবে। একজন শিক্ষার্থীকে তার মেধা, কোটা ও পছন্দক্রমানুযায়ী একটি মাত্র কলেজের জন্য নির্বাচন করা হবে। নির্বাচিত শিক্ষার্থী নিজেই অন-লাইনে বোর্ডের রেজিস্ট্রেশন ও অন্যান্য ফি বাবদ নির্ধারিত  টাকা জমা দিয়ে প্রাথমিক ভর্তি নিশ্চায়ন করবে এক জন শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ২(দুই) বার স্বয়ংক্রিয়ভাবেকৃত মাইগ্রেশনের জন্য বিবেচিত হবে। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, স্বয়ংক্রিয়ভাবেকৃত মাইগ্রেশন সর্বদাই শিক্ষার্থীর পছন্দক্রমানুসারে উপরের দিকে যাবে।

 

একাদশ শ্রেণি ভর্তি/এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১/উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি/আলিম ভর্তি
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন
১। ভর্তির যোগ্যতা ও গ্রুপ নির্বাচন :

১.১)   ২০১৮, ২০১৯ ও  ২০২০ সালে দেশের যে কোন শিক্ষা বোর্ড এবং বাংলাদেশ উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীগণ ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে সংশ্লিষ্ট নীতিমালার অন্যান্য বিধানাবলী পূরণ সাপেক্ষে কলেজ/সমমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য যোগ্য বিবেচিত হবে।

১.২ ভর্তির জন্য একজন প্রার্থী নিম্নরূপ-এ গ্রুপ নির্বাচন করতে পারবে, যথা:

 সাধারণ শিক্ষা বোর্ড হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ভর্তির ক্ষেত্রে:

(ক) বিজ্ঞান গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা গ্রুপের যে কোনো একটি।
(খ) মানবিক গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা গ্রুপের যে কোনো একটি এবং
(গ) ব্যবসায় শিক্ষা গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক গ্রুপের যে কোনো একটি।

আলিম ভর্তি

আলিম ভর্তি: মাদ্রাসা বোর্ড হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ভর্তির ক্ষেত্রে

বিজ্ঞান গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা এবং
মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞান, সাধারণ গ্রুপ ও মুজাব্বিদ গ্রুপের যে কোনো একটি গ্রুপে ভর্তি হতে পারবেন।

সাধারণ গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা এবং মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের সাধারণ গ্রুপ ও মুজাব্বিদ গ্রুপের যে কোনো একটি।
মুজাব্বিদ গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা এবং মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের সাধারণ গ্রুপ ও মুজাব্বিদ গ্রুপের যে কোনো একটি;
দাখিল (ভোক) গ্রুপ থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের সাধারণ গ্রুপ ও মুজাব্বিদ গ্রুপের যে কোন একটি।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ড হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ভর্তির ক্ষেত্রে:

(ক) এসএসসি (ভোক)/দাখিল (ভোক) গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা গ্রুপের যে কোনো একটি।

উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় হতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের বয়সসীমা ২০২০ এর ১লা জানুয়ারী অনুর্ধ ২২ বছর হতে হবে, অর্থাৎ শিক্ষার্থীদের জম্ম তারিখ ১৯৯৮ এর ১লা জানুয়ারী বা তার পরে হতে হবে।

যে কোন বিভাগ (বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা) থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী গার্হস্থ্য অর্থনীতি ও সংগীত গ্রুপ এর যে কোনো একটি।

 অনলাইন/ইন্টারনেট এ ভর্তির আবেদন দাখিলের জন্য করণীয়

একাদশ শ্রেণি ভর্তি: আবেদনের ফি প্রদান পদ্ধতি

ইন্টারনেটে আবেদনের পূর্বে শিক্ষার্থীকে টেলিটক/বিকাশ/শিওরক্যাশ/নগদ এর মাধ্যমে  আবেদন ফি প্রদান করতে হবে। প্রার্থীকে তার এসএসসি/সমমানের পরীক্ষার বোডর্, রোল নম্বর এবং পাসের বছর ব্যবহার করে নির্ধারিত টাকা ফি প্রদান করতে হবে।

 অনলাইন/ইন্টারনেট আবেদনের জন্য করণীয়

একাদশ শ্রেণি ভর্তির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট http://xiclassadmission.gov.bd/
xi admission
উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তির ওয়েবসাইট (http://xiclassadmission.gov.bd)  এই  ঠিকানায় গিয়ে নির্দেশিকা মোতাবেক তথ্য পুরণ ও কলেজ পছন্দক্রম সাজিয়ে আবেদন করতে হবে।

আবেদন করা হয়ে গেলে, আবেদনপত্র সংগ্রহের জন্য ডাউনলোড করে প্রিন্ট করতে পারবেন।

বাংলাদেশ আন্তঃ শিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি কর্তৃক ভর্তির কোন নিয়ম পরিবর্তন, সংশোধন, পরিমার্জন ইত্যাদি সংযোজন বা বিয়োজন হলে বাংলা ডেস্কে তা আপডেট জানানো হবে।

আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ https://www.facebook.com/bndesk.net লাইক দিয়ে বাংলা ডেস্কের সাথে থাকুন। ইনবক্সে আপডেট তথ্য পেতে সাবস্ক্রাইব করুন।

আরো পড়ুন:
২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নির্দেশিকা
২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নির্দেশিকা
২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নীতিমালা

কলেজের তালিকা (বোর্ড অনুসারে)

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, বরিশাল
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, চট্টগ্রাম
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, কুমিল্লা
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোর
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ময়মনসিংহ
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, রাজশাহী
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, সিলেট
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর
বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড

মেধামান নির্ধারণ

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির ফলাফলএকাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নীতিমালা অনুসরণপূর্বক ভর্তির ফলাফল প্রক্রিয়াকরণ ও মেধামান নির্ণয় করা হবে। আবেদনকারীদের বিভিন্ন কলেজ/মাদ্রাসা /সমমানের প্রতিষ্ঠানে আবেদন ঐ প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট গ্রুপ/শিফট/ ভার্সন, আসন সংখ্যা, পছন্দক্রম এর ভিত্তিতে এবং নিম্নবর্ণিত নিয়মানুযায়ী মেধামান নির্ধারণপূর্বক একজন আবেদনকারী শিক্ষার্থীকে শুধুমাত্র একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নির্বাচিত করা হবে।

(ক) এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-র ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মেধাক্রম নির্ধারণ করা হবে।

(খ) সমান জিপিএ প্রাপ্তদের ক্ষেত্রে সর্বমোট প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধাক্রম নির্ধারণ করা হবে। বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড, কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ও বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এর ক্ষেত্রে প্রাপ্ত নম্বর সমতুল্য করে হিসাব করা হবে। তাছাড়া বিভিন্ন সালের গ্রেড পয়েন্ট ও প্রাপ্ত নম্বর সমতুল্য করে হিসাব করতে হবে।

(গ) বিজ্ঞান গ্রুপে ভর্তির ক্ষেত্রে সমান মোট নম্বর প্রাপ্তদের মেধাক্রম নির্ধারণের জন্য পর্যায়ক্রমে সাধারণ গণিত ও উচ্চতর গণিত/জীববিজ্ঞানে প্রাপ্ত নম্বর বিবেচনায় আনা হবে।

(ঘ) বিজ্ঞান গ্রুপে ভর্তির ক্ষেত্রে উপরের ক, খ এবং গ -এর বিধান সত্ত্বেও যদি প্রার্থী বাছাইকল্পে উদ্ভুত জটিলতা নিরসন না হয়, তবেপর্যায়ক্রমে ইংরেজি, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়নে প্রাপ্ত নম্বর বিবেচনায় আনা হবে।

(ঙ) মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা গ্রুপের ক্ষেত্রে সমান মোট নম্বর প্রাপ্তদের মেধাক্রম নিম্পত্তির লক্ষ্যে পর্যায়ক্রমে ইংরেজি, গণিত ও বাংলা বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বর বিবেচনায় আনা হবে।

(চ) এক গ্রুপের প্রার্থী অন্য গ্রুপে ভর্তির ক্ষেত্রে জিপিএ একই হলে সর্বমোট প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধাক্রম নির্ধারণ করা হবে। এ ক্ষেত্রে প্রার্থী বাছাইকল্পে উদ্ভুত জটিলতা নিরসন না হলে পর্যায়ক্রমে ইংরেজি, গণিত ও বাংলা বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বর বিবেচনায় আনা হবে।

ভর্তির ফলাফল প্রক্রিয়াকরণ, প্রকাশ এবং মাইগ্রেশন

মোট ৩ (তিন) টি পর্যায়ে ফলাফল প্রক্রিয়াকরণ করা হবে। প্রাথমিক নিশ্চায়ন সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ২(দুই) বার স্বয়ংক্রিয়ভাবে মাইগ্রেশন প্রক্রিয়া চালনা করা হবে অর্থাৎ প্রাথমিক নিশ্চায়নের পরও সর্বোচ্চ ২(দুই) বার একজন শিক্ষার্থীর কলেজ নির্বাচন পরিবর্তন হতে পারে।

প্রতি পর্যায়ে পছন্দক্রমানুযায়ী অটোমাইগ্রেশন হবে এবং মাইগ্রেশন সর্বদাই পছন্দক্রমানুসারে উপরের দিকে যাবে।

একজন শিক্ষার্থী তার আবেদনের সময় দেয়া কলেজ পছন্দক্রম ও এসএসসি/সমমান পরীক্ষার ফলাফল, কোটা ইত্যাদির ভিত্তিতে শুধুমাত্র ১টি কলেজেই সিলেকশন পাবে।

নির্বাচিত শিক্ষার্থী নিজেই অনলাইনে বোর্ডের রেজিস্ট্রেশন ও অন্যান্য ফি বাবদ নির্ধারিত টাকা জমা দিয়ে প্রাথমিক ভর্তি নিশ্চায়ন করবেন।
উল্লেখ্য যে, প্রত্যেক নির্বাচিত শিক্ষার্থীকে অবশ্যই নির্ধারিত টাকা জমা দিয়ে ভর্তি নিশ্চায়ন করতে হবে।
অন্যথায় শিক্ষার্থীর মনোনয়ন ও আবেদন বাতিল হবে।
এমন শিক্ষার্থী ইচ্ছা করলে পরবর্তী পর্যায়ের জন্য আবেদন ফি জমা দিয়ে নতুন আবেদন করতে পারবে।

যে সকল শিক্ষার্থী আবেদনকৃত কোন কলেজেই সিলেকশন পাবে না তারা পুনরায় আবেদন ফি ব্যতীত
এবং যারা ইতিপূর্বে কোন কলেজেই আবেদন করে নাই তারা আবেদন ফি জমা সাপেক্ষে
আবেদন করতে পারবে।

ফলাফল প্রক্রিয়াকরণের পর নির্দিষ্ট তারিখে শিক্ষার্থীদের SMS-এর মাধ্যমে ফলাফল জানানো হবে
এবং একই সাথে SMS-এ একটি গোপনীয় Security Code প্রদান করা হবে।
এই Security Code টি চুড়ান্ত ভর্তি নিশ্চায়নের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে।

শিক্ষার্থীরা ভর্তির ওয়েবসাইট www.xiclassadmission.gov.bd থেকে ভর্তির বিস্তারিত ফলাফল জানতে পারবেন। এছাড়াও শিক্ষাবোর্ডসমুহের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য জানা যাবে।

বাংলাদেশের শিক্ষাবোর্ডসমুহ

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, বরিশাল
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, চট্টগ্রাম
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, কুমিল্লা
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোর
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ময়মনসিংহ
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, রাজশাহী
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, সিলেট
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর
বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড
বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড

একাদশ শেণিতে ভর্তি সহায়ক গাইড

বৈশ্বিক দুর্যোগ অদৃশ্য করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশসহ সারা পৃথিবীর দৃশ্যপট বদলে গেছে। যার প্রভাব পড়েছে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রমে। গত ৩১ মে ২০২০ এসএসসি পরিক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা অপেক্ষার প্রহর গুনছে একাদশ শ্রেণি বা উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তি হওয়ার জন্য।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর বাংলাদেশে  গত মার্চ মাসের মাঝামাঝিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়।
২৬ মার্চ থেকে শুরু হয় সাধারণ ছুটি। দুই মাসের সাধারণ ছুটি শেষে  খুলেছে অফিস।
বাস ট্রেন চলাচল করছে। কিন্তু খুলে নাই কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
আগামী ১৫ জুন পযন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। এবং সেদিনেই একাদশ শ্রেণির ভর্তির চূড়ান্ত তথ্য পাওয়া যাবে।

২০২০ সালের এসএসসি ফল প্রকাশের দিন প্রধানমন্ত্রী এসএসসি উত্তীর্ণ ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্য
বলেছেন, ’শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অচিরেই খুলছে না । ধাপে ধাপে বিভিন্ন ক্ষেত্র খোলার পর পরিস্থিতির উত্তরণ
ঘটলে তবেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হবে ।

আজকে আমরা এসএসসি, দাখিল এবং সমমান পরীক্ষার রেজাল্ট দিলাম। হয়ত কলেজ এখন আমরা খুলবো না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আমরা খুলতে পারছি না। কারণ আমরা ধাপে ধাপে এগুতে চাচ্ছি। যাতে করে এই করোনাভাইরাস দ্বারা তারা আক্রান্ত না হয়। কারণ এরা আমাদের ভবিষ্যৎ। তাদের ভবিষ্যৎটা আমি ঝুঁকিতে ফেলতে পারি না। কাজেই সেই কারণেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আমরা এখন উন্মুক্ত করব না। এই অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটাতে পারলে পর্যায়ক্রমিকভাবে আমরা তখন এটা উন্মুক্ত করব।

আমি অনুরোধ করবো সবাই যেন ঘরে বসে একটু পড়াশোনা করে। এটা একটা পড়াশোনার ভালো সুযোগও। কারণ এখন বেশি কাজ নেই। অনেক কিছু জানার,পড়ার সুযোগ পাচ্ছি। সেটাও কম কথা নয়।
তবে ২০০৮ এর নির্বাচনের ইশতেহারে ঘোষণা দিয়েছিলাম ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলব। সেই ডিজিটাল বাংলাদেশ আমরা গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি বলেই আজকে সেই ডিজিটাল পদ্ধতিতে আমরা কিন্তু আমাদের সকল কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে সক্ষম হয়েছি।

একাদশ শেণিতে ভর্তি

যে কোনো সঙ্কটে আমি মনে করি, আত্মবিশ্বাস রাখতে হবে। নিজের আত্মবিশ্বাসটা হচ্ছে সব থেকে বড়, যে কোনো পরিস্থিতি হোক, আমরা মোকাবেলা করতে পারব।
আমি ছাত্রছাত্রীদের বলব, এটা আমাদের মনে রাখতে হবে, আমরা মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জন করেছি। আমরা বিজয়ী জাতি।
কাজেই যে কোনো ঝড়-ঝাপ্টা যে কোনো তুফান আসুক, যে কোনো পরিস্থিতি আসুক,
আত্মবিশ্বাসের সাথে আমরা তা মোকাবেলা করব এবং সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করব।
ঠিক এখন যেভাবে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে যাচ্ছে। এটাই হচ্ছে আমাদের লক্ষ্য,
এটাই হচ্ছে আমাদের সিদ্ধান্ত।”

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি

একাদশ শ্রেণি ভর্তি/এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১/উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি/আলিম ভর্তি/একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন

মাধ্যমিক পরিক্ষার ফল প্রকাশের পর জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনা থাকলেও, কলেজে ভর্তি নিয়ে এখন চুড়ান্ত কোন নির্দেশনা শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা শিক্ষা বোর্ড থেকে দেওয়া হয় নাই। মে মাসের মধ্যে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ঘোষণা করা হলে আগামী ৬ জুন থেকে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনা নিয়েছিল ঢাকা শিক্ষা বোর্ড। এই বোর্ড থেকে গত কয়েক বছর ধরে কেন্দ্রীয়ভাবে দেশের সব সরকারি-বেসরকারি কলেজে একাদশ শ্রেণি/উচ্চ মাধ্যমিকয়ের  শিক্ষার্থী ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পুর্ণ করা হত। উক্ত ভর্তি পরিক্ষায় কারিগরি সহযোগিতা প্রদান করে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়(বুয়েট)।

বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ভর্তি প্রক্রিয়া এখনই শুরু হচ্ছে না। ইন্টারনেট/অনলাইনে কলেজে ভর্তির আবেদন করা গেলেও শিক্ষার্থীরা আবেদন করার জন্য কম্পিউটারের দোকানে যায়, কলেজে যায়।

সহস্রাধিক শিক্ষার্থী কিংবা তাদের অভিভাবকরা বিভিন্ন কারণে বোর্ডে যাওয়া পড়ে ভর্তির সময়। উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তির সঙ্গে ১৭ থেকে ১৮ লাখ শিক্ষার্থী জড়িত।

সাধারণত, ভর্তির সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে কিছু কাজ করতে হয়। ফলে এই সময় তারা ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে। আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এখন বন্ধ। এবার ২০ লাখ ৪০ হাজার ২৮ জন শিক্ষার্থী মাধ্যমিকের চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নেয়, তাদের মধ্যে ১৬ লাখ ৯০ হাজার ৫২৩ জন পাস করেছে।

উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা একাদশ শ্রেণিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তির জন্য আবেদন করবেন।

Also read: 41st BCS preliminary syllabus with Marks Distribution

একাদশ শ্রেণি ভর্তি/এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১/উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি/আলিম ভর্তি

একাদশ শ্রেণি/এইচএসসি/উচ্চ মাধ্যমিক ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ ভর্তি নিয়মএসএসসি ২০২০ ও সমমানের ফল প্রকাশিত হয়েছে। এতে ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড এবং মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে ১৬ লাখ ৯০ হাজার ৫২৩ জন পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে।
মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ জন পরীক্ষার্থী।
এসএসসি পরীক্ষার শেষ পর্যায়ে গত ফেব্রুয়ারি মাসেই একাদশ শ্রেণিতে ভর্তিসংক্রান্ত কাজগুলো ঠিক করে রেখেছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ঢাকা বোর্ড। তখন সিদ্ধান্ত হয়েছিল গত মাসের শুরুর দিকে এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ করে ১০ মে থেকে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আবেদন নেওয়া শুরু হবে। ১ জুলাই থেকে ক্লাস শুরুর কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে পুরো শিক্ষাপঞ্জি এলোমেলো হয়ে গেছে।

বিদ্যমান পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনায় ১৫ জুনের পর পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও আন্ত: বোর্ড।
১৫ জুন পর্যন্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে ভর্তির চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। এবার আবেদন হবে শুধু অনলাইনে।
এসএমএসে আবেদন করা যাবে না।

Also read: How to prepare for the BCS Preliminary Examination

একাদশ শ্রেণি ভর্তি
নিয়ম–কানুন চূড়ান্ত

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণির ভর্তি প্রক্রিয়া শুধুই অনলাইনের মাধ্যমে সম্পাদন করা হবে।
এবার এসএমএসে ভর্তি আবেদন করা যাবে না।
ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা অনলাইনেকমপক্ষে ৫টি ও সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ বা সমমানের
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য পছন্দক্রম দিয়ে আবেদন করতে পারবে।
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে
একজন শিক্ষার্থী কোন প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য মনোনীত হলো, তা ঠিক করা হবে।

একাদশ শ্রেণি ভর্তি: কলেজ পছন্দ দেওয়ার পরামর্শ

২০২০ সালে এসএসসি পরিক্ষায় পাস করেছে প্রায় ১৭ লাখ পরীক্ষার্থী।
আরা সারা দেশে ভর্তির জন্য আসন আছে প্রায় ২৯ লাখ।
ভালো কলেজগুলোতে আসন নির্দিষ্ট। অনেকেই শুধু শহরের কলেজগুলোতে ভর্তির পছন্দ দেয়।
কিন্তু এসএসসির ফল ও আসনের সঙ্গে সামঞ্জস্য না থাকায় অনেকেই ভর্তি নিয়ে জটিলতায় পড়ে।
এ জন্য কলেজ পছন্দের ক্ষেত্রে নিজের এসএসসি ও সমমানের ফল ও কলেজের আসন দেখে পছন্দক্রম দেওয়ার পরামর্শ রইল।

বন্ধুরা, ভর্তি নিয়ে আপডেট জানতে বাংলা ডেস্কের সাথে থাকুন।
বাংলা ডেস্ক, খুব শ্রীঘ্রই উচ্চ মাধ্যমিক সিলেবাসভুক্ত বিষয়সমুহে অনলাইন পাঠদান শুরু করতে যাচ্ছে।
বাংলা ডেস্কের সাথে থাকুন। থাকুন আলোর পথে।
তোমাদের ভর্তি সংক্রান্ত যে কোন সমস্যা লিখে ফেল মন্তব্যর ঘরে।

2 Comments

  1. ঢাকা বোর্ড &কুমিল্লা বোর্ডের কলেজে আবেদন করা যাবে একই ছাত্র।

Leave A Reply

Please enter your comment!
Please enter your name here